Uncategorized

হাজার ঘ’ষামাজা করার পরেও বেসিন নোং’রা ? এই উপায়ে পরিষ্কার করুন, নিমেষে ঝকঝক করবে!

হাজার ঘষামাজা করলেও বেসিন ঠিকমতো প’রিষ্কার হয় না ? দুদিন যেতে না যেতেই ফের নোংরা হয়ে যায়? রইল রান্নাঘর ও বাথরুমের বেসিন ঝকঝকে রাখার ঘরোয়া উপায়–

পোর্সেলিনের ওয়াশ বেসিন চকচকে রাখতে বেকিং সোডা, লেবুর রস আর কয়েক ফোঁটা বাসন ধোয়ার লিক্যুইড সাবান মিশিয়ে নিন। এবার মি’শ্রণটি বেসিনে মাখিয়ে কিছুক্ষণ ওইভাবেই রেখে দিন। তারপর স্ক্রাবার দিয়ে ঘষে জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

স্বচ্ছ কাচের বেসিনে দাগ-ছোপ দূ’র ক’রতে জল আর ভিনিগারের মি’শ্রণ ব্যবহার করুন। প’রিষ্কারের পর অবশ্যই শুকনা কাপড় দিয়ে মুছে নিতে হবে।সেরামিকের বেসিনে অ্যাসিড বা কড়া সাবান ব্যবহার করবেন না। লিক্যুইড বা গুঁড়া সাবান দিয়ে প’রিষ্কার করুন।

সিংকের ড্রেন ব’ন্ধ হয়ে যায় ? ড্রেনের মুখে নেট ব্যবহার করলে খুব দ্রুত ময়লা প’রিষ্কার করা যায়। সিংক প’রিষ্কার রাখতে লিক্যুইড বা গুঁড়ো সাবান নিয়ে স্ক্রাবারের সাহায্যে তেল চিটচিটে এবং দাগযুক্ত জায়গা ভালোভাবে ঘষে প’রিষ্কার করুন। স্যাভলন অথবা ডেটল দিয়ে চারপাশ মুছে জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

সবসময় বেসিনের কল ভালভাবে ব’ন্ধ রাখু’ন, জল পড়ার দাগই একসময় স্থা’য়ী রূপ ধারণ করে। লিক্যুইড বা গুঁড়ো সাবানের স’ঙ্গে ব্লিচিং পাউডার মিশিয়ে বেসিন প’রিষ্কার করলে নিমেষে ঝকঝকে হয়ে ওঠে।

বেসিনে ন্যাপথলিন ব্যবহার করুন, দুর্গন্ধ এড়ানো যায়। দিনের শেষে বেসিনের মধ্যে গরম জল ঢেলে দিলে পাইপের মধ্যে থাকা জীবাণূ মরে যায়। মাঝেমধ্যে বেসিনে নুন ছ’ড়িয়ে রাখতে পারেন। এতেও জীবাণূ প্র’তিরো’ধ সম্ভব।

Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Related Articles

Back to top button
Close
%d bloggers like this: