Uncategorized

নদ-নদীর পানি অস্বাভাবিক মাত্রায় বৃদ্ধি, উপকূলের অনেক এলাকা প্লাবিত!! ⋆ BirohiMon


Loading…

বরগুনার প্রধান তিনটি নদীতে পানি অস্বাভাবিক মাত্রায় বৃদ্ধি পেয়েছে। পানি উন্নয়ন বোর্ড জানিয়েছে, জেলার প্রধান তিনটি নদীর (পায়রা-বিষখালী-বলেশ্বর) পানি বি’পদসীমার ৩৩ সে. মি উপর দিয়ে প্রবা’হিত হচ্ছে।

এতে প্লা’বিত হয়েছে নিম্নাঞ্চলের শত শত ঘর-বাড়ি। জেলার ৬২৮টি সাইক্লোন শেল্টারে আশ্রয় নিয়েছে ঝুঁ’কিপূর্ণ এলাকার দুই লক্ষাধিক মানুষ।

করোনা ভাইরাসের কারণে কিছুটা হলেও মানা হচ্ছে সামাজিক দূরত্ব। জেলা ও উপজেলা প্রশাসনসহ বিভিন্ন মহল থেকে দেয়া হচ্ছে খাদ্য সহায়তা। তবে ঘর-বাড়ির মায়া ত্যা’গ করে এখনও আশ্রয়কেন্দ্রে যায়নি অনেকে।

বরগুনা জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, এ খবর লেখা পর্যন্ত (দুপুর দুইটা) জেলার ৬২৮টি সাইক্লোন শেল্টারে আশ্রয় নিয়েছে ঝুঁ’কিপূর্ণ এলাকার অন্তত দুই লক্ষাধিক মানুষ। যারা আশ্রয় নিয়েছে তাদেরকে জেলা ও উপজেলা প্রশাসন, পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে শুকনা ও রান্না করা খাবার বিতরণ করা হচ্ছে।

ভিডিওটি দেখুন

করোনা ভাইরাস সং’ক্র মণ প্রতিরো’ধে জীবা’ণুনা’শক স্প্রে, হাত ধোয়ার জন্য সাবান-পানির ব্যবস্থা, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও খাবার পানির ব্যবস্থা করা হয়েছে। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে দুর্যো’গ মোকাবিলার পাশাপাশি ২০০ টন চাল ও ২৫ লাখ টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে।

৪২টি মেডিকেল টিম, ফায়ার সার্ভিসের ৬টি ও বিদ্যুৎ বিভাগের ৩টি কুইক রেসপন্স টিমও প্রস্তুত রাখা হয়েছে। প্রস্তুত রয়েছেন প্রায় ৮ হাজার স্বেচ্ছাসেবক।

বরগুনার জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ বলেন, ঘূর্ণিঝড় আম্পান মো’কাবেলায় আমরা সর্বোচ্চ প্রস্তুতি গ্রহণ করেছি।

জেলা ও উপজেলা প্রশাসনসহ সিপিপি, রেডক্রিসেন্টের কর্মীরা ঝুঁ’কিপূর্ণ এলাকার মানুষজনকে আশ্রয়কেন্দ্রে নিতে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে। দুর্যো’গ আঘা’ত হা’নার আগেই বেড়িবাঁধের বাইরের লোকজনকে আশ্রয় কেন্দ্রে নিয়ে আসা সম্ভব হবে।

নিচের ভিডিওটি মিস করেন নি তো?


Post Views:



Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Related Articles

Back to top button
Close
%d bloggers like this: