Uncategorized

দেশে ম্যাগলেভ ট্রেন চালানোর পরিকল্পনা মোদী সরকারের, ঘন্টায় গতিবেগ হবে ৫০০ কিমি – Kolkata24x7

ফাইল ছবি

নয়াদিল্লি: বুলেট ট্রেনের পরে মোদী সরকার এবার আগ্রহ প্রকাশ করল ম্যাগেলভ ট্রেন চালনার দিকে। এর জন্য রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন সংস্থা ভারত হেভি ইলেকট্রিস লিমিটেড(বিএইচইএল) সুইস র‌্যাপিড এজি-র সাথে চুক্তি করেছে। BHEL (ভেল) নিজেই এ সম্পর্কে তথ্য দিয়েছে।

উল্লেখ্য, এই ম্যাগলেভ শব্দটি ইংরেজি শব্দ ম্যাগনেটিক লেভিটেশন থেকে এসেছে। চৌম্বকীয় শক্তির মাধ্যমে শূন্যে উত্তোলন করে কোন বস্তুকে চাকা, এক্সেল কিংবা বিয়ারিং ছাড়াই সামনের দিকে চালনা করার যে পদ্ধতি তাকেই বলে ম্যাগলেভ।

এই ম্যাগলেভ ট্রেনের বৈশিষ্ট্য হল, এই ট্রেনে কোনও চাকা থাকে না। ম্যাগলেভ ট্রেনগুলো অন্যান্য চাকাযুক্ত গতানুগতিক ট্রেনের চেয়ে অনেক মসৃণ ও শব্দহীনভাবে চলতে পারে। এছাড়া চৌম্বক শক্তির মাধ্যমে এর ভর পরিবর্তিত করার ফলে যেকোন আবহাওয়াতেই এই ট্রেন সর্বোচ্চ গতিবেগে চলতে পারে। এর গতিবেগ ঘন্টা প্রতি ৫০০ কিমিরও বেশি হতে পারে।

সূত্রমতে, বেঙ্গালুরু-চেন্নাই, হায়দরাবাদ-চেন্নাই, দিল্লি-চণ্ডীগড় এবং নাগপুর-মুম্বইয়ের মধ্যে ম্যাগলেভ ট্রেন চালানোর পরিকল্পনা করছে মোদী সরকার। জার্মানি, চিন, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মতো দেশে ম্যাগলেভ ট্রেনের প্রযুক্তি রয়েছে।

তবে জার্মানি, ব্রিটেন, আমেরিকার মতো দেশ ম্যাগলেভ প্রযুক্তি দিয়ে ট্রেন চালানোর স্বপ্ন দেখলেও এর ব্যয় এবং বিদ্যুৎ খরচ দেখে তা সফল হয়নি। বাণিজ্যিকভাবে, এটি কেবল তিনটি দেশ চিন, দক্ষিণ কোরিয়া এবং জাপানে কাজ করে।

মোদীর ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’ এবং ‘স্বনির্ভর ভারত’কে মাথায় রেখে এই চুক্তি করা হয়েছে বলে উল্লেখ করেছে ভেল। এই সংস্থা গত প্রায় ৫০ বছর ধরে রেলের উন্নয়নে অংশীদার। সংস্থাটি রেলপথে বৈদ্যুতিক এবং ডিজেল ইঞ্জিন সরবরাহ করে।

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা

Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Related Articles

Back to top button
Close
%d bloggers like this: