Uncategorized

চেতনানাশক ইনজেকশন দিয়ে রোগীদের ধর্ষণ করত নিয়মিত এই ডাক্তার

চে’তনানা’শক ইনজে’কশন পু’শ করে ধ’র্ষ’ণ। তুলে রাখা হতো ছবি। সিরিয়াল ধর্ষক চাঁদপুরের রসু খা, নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের স্কুলশিক্ষক আরিফ কিংবা চট্টগ্রামের বহুল আলোচিত বেলাল দফাদারের ধ’র্ষ’ণের উৎসব থেকেও আরও কয়েক ধাপ এগিয়ে গেছেন কুমিল্লার লাকসাম পৌর শহরের

জংশন এলাকায় র‌্যাবের হাতে আটক ডাক্তার না’মধারী সিরি’য়াল ধ’র্ষ’ক আলো’চিত মী’র হোসেন। ধ’র্ষ’ণে তার কৌ’শল ছিল ভিন্ন। বছরের পর বছর নিজের

মা’লিকানাধীন ডিজি’টাল হেলথ কেয়ারের প্যাথলজি ল্যা’বে কর্মরত নারী’কর্মী’দের ধ’র্ষ’ণ করে আসছিলেন তিনি। কখনও প্র’লোভ’নে, কখ’নও চাক’রি হারা’নোর

হু’ম’কি দিয়ে কিংবা কাউকে চেতনানাশক ইন’জেকশন পু’শ করে ধ’র্ষ’ণ করে আসছিলেন তিনি। ধ’র্ষ’ণের সময় গো’পন ক্যা’মেরায় ছবি তুলে মাসের পর মাস ছবি

প্রকা’শের হু’ম’কি দিয়ে চালিয়ে গেছেন যত অ’পক’র্ম। কিন্তু এবার ধরাশায়ী হয়েছেন ওই নারী’লোভী কথিত ডাক্তার। এক না’রীক’র্মী’র অ’ভিযোগের প্রে’ক্ষিতে বুধবার

তাকে আ’টক করেছে কুমি’ল্লার র‌্যাব ১১, সিপিসি-২ এর একটি দল। কথিত ওই ডা’ক্তার মীর হোসেন লাকসাম পৌরসভার বাইনচাটিয়া গ্রামের খোরশেদ আলমের ছেলে।

ঠিক কতজন না’রীক’র্মী এ যাবত ধ’র্ষ’ণের শিকার হয়েছেন- এ বিষয়ে র‌্যাব নিশ্চিত হতে তাকে জি’জ্ঞা’সা’বাদ অ’ব্যাহত রেখেছে। বিষয়টি নি’শ্চিত করেছেন র‌্যাব-১১

এর কুমিল্লার সিপিসি-২ এর কোম্পানি কমা’ন্ডার সহ’কারী পুলিশ সুপার প্রণব কু’মার। এ বিষয়ে বৃহস্পতিবার লাকসাম থানায় মা’মলা হতে পারে। র‌্যাব, স্থা’নীয় সূত্র ও

ভু’ক্তভো’গীদের অ’ভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ভু’য়া ডাক্তার মীর হোসেন তার প্যা’থলজিতে সু’ন্দরী মেয়েদের চাক’রি দিয়ে নানা কৌশলে তাদের ধ’র্ষ’ণ করতেন।

পশ্চিম আফ্রিকার দেশ ঘানার একটি মাছ প্রক্রিয়াজাতকরণ কারখানায় এক শ্রমিকের মাধ্যমে আরো ৫৩৩ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। রোববার টেলিভিশনে এক ভাষণে এ তথ্য জানিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট নানা আকুফো-আদ্দো।

গত শুক্রবারই টেমা শহরের কারখানাটিতে ভাইরাস সংক্রমণের কথা জানিয়েছিল ঘানার স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ। তবে সে সময় বিস্তারিত জানানো হয়নি, খবর সিএনএন।

প্রেসিডেন্ট আকুফো-আদ্দো জানান, নতুন শনাক্ত ৫৩৩ জনকে নিয়ে ঘানায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে চার হাজার ৭০০ জন, যা পশ্চিম আফ্রিকার দেশগুলোর মধ্যে সর্বোচ্চ। দেশটিতে এ পর্যন্ত করোনায় ২২ জন মারা গেছেন। আর সুস্থ হয়েছেন ৪৯৪ জন।

তিনি জানান, সেখানে সংক্রমণ শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত অন্তত এক লাখ ৬০ হাজার ৫০১টি টেস্ট করা হয়েছে। প্রতি ১০ লাখ মানুষের মধ্যে পরীক্ষার হারে আফ্রিকান যে কোনো দেশের মধ্য সবার ওপরে রয়েছে ঘানা।

এসময় মে মাসের শেষ নাগাদ জনসমাবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি রাখার ঘোষণা দেন দেশটির প্রেসিডেন্ট। পাশাপাশি স্কুল ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলো বন্ধ থাকবে বলেও জানান আকুফো-আদ্দো।



Source link

Tags

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Related Articles

Back to top button
Close
%d bloggers like this: