Uncategorized

ঘূ’র্ণিঝড় ‘আম্পান’ শ’ঙ্কার মধ্যেই সমুদ্র সৈকতে ফেনা রহ’স্য!

ঘূ’র্ণিঝ’ড় আম্ফানের আত’ঙ্কের মধ্যেই ভারতের পশ্চিমবঙ্গের উপকূলীয় শহর দিঘার সমুদ্রে অদ্ভূত ফেনা দেখা গেছে। দূ’র থেকে দেখলে মনে হবে বরফ প’ড়ে আছে। তবে একটু এগুলে বোঝা যাবে এগু’লি বরফ নয় আ’সলে সমুদ্রের ফেনা।

দেশটির আবহাওয়া দফতর এরইমধ্যেই ঘো’ষণা দিয়েছে যে, ধে’য়ে আ’সছে ঘূ’র্ণিঝ’ড় আম্ফান।

শ’ক্তিশালী এ ঘূ’র্ণিঝড় পশ্চিমবঙ্গ, ওডিশা উপকূল এলাকায় ঘণ্টায় প্রায় ১২০ কিলোমিটার বেগে আছড়ে পড়তে পারে। তার আগে দিঘার সমুদ্রে এমন সাদা ফেনা দেখা যাওয়ায় নতুন করে আত’ঙ্ক দেখা দিয়েছে।

ঘূ’র্ণিঝড়ের স’ঙ্গে এই ফেনার কোনও স’স্পর্ক আছে কিনা তা নিয়ে নানা প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে উপকূলবর্তী স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে।

স্থানীয় বাসিন্দারা জা’নান, এর আগে দিঘার সমুদ্রে এত সাদা সাদা সাবানের মতো ফেনা কখনও দেখেননি তারা। বলেন, এগুলো দেখে খুব অ’বাক হয়েছি। কোত্থেকে এমন ফেনা আ’সছে তাও জানি না।

তবে সমুদ্র বিজ্ঞানী আনন্দ দেব মুখোপাধ্যায় জানিয়েছেন, এই ঘ’টনা একেবারেই অস্বা’ভাবিক নয়। এ নিয়ে ভয় পাওয়ারও কোনো কারণ নেই। বলেন, লকডাউনের ফলে সমুদ্র এখন অনেকটা দূষণমু’ক্ত। আগে দূষণের জন্য সমুদ্রের তলদেশের সেডিমেন্ট সমুদ্রের নিচের দিকেই থাকত।

কিন্তু এখন দূষণ না থাকায় সেসব উপাদান পানির উপরের স্তরে চলে আ’সছে। আর আম্ফানের প্র’ভাবে সমুদ্রের ওপরে বাতাসের গতিবেগ এখন অনেক বেড়েছে। যার ফলে বাতাসের ধা’ক্কায় সমুদ্রের পানিতে উৎপন্ন হচ্ছে ফেনা। যা আছড়ে পড়ছে উপকূলে।

এদিকে, দিঘার এক শী’র্ষ ক’র্মকর্তা বলেন, এটা স্বা’ভাবিক ঘ’টনা। আগে সমুদ্রের ঢেউ বা রোলিং কম ছিল। তাই ফেনা কম উৎপন্ন হত। এখন সমুদ্রের পানিতে সার্কুলেশন অনেক বেড়েছে। ঘূ’র্ণিঝড়ের জন্য বেড়েছে সমুদ্রের ওপরে বাতাসের গতিবেগ। তাই অনেক বেশি ফেনা বেড়েছে।

তবে শুক্রবার রাতের তুলনায় শনিবার ফেনা কিছুটা কমতে দেখা গেছে। বেলা বাড়ার স’ঙ্গে স’ঙ্গে এই ফেনার পরিমাণ আরও কমেছে বলে জা’নিয়েছেন স্থানীয়রা। লকডাউন চলায় দীঘা উপকূল এখন একেবারেই জনমানব শূন্য।



Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Related Articles

Back to top button
Close
%d bloggers like this: