Uncategorized

করোনা আ’ক্রা’ন্ত ব্য্যক্তির চোখ ওঠায় করণীয় –

চোখ ওঠেনি এমন কাউকে কি পাওয়া যাবে ? চোখ উঠলে চোখ লাল হয়ে যায়, কিছুটা ব্যথা ও খচখচ ভাব থাকে। এর সঙ্গে থাকে চোখ দিয়ে পানি পড়ার সমস্যা। চোখ ওঠা হতে পারে ব্যাকটেরিয়া দিয়ে, এ ছাড়া ভাই’রাস আক্র’মণের কারণেও চোখ ওঠার সমস্যা হতে পারে। বেশির ভাগ সময়ই ভাইরাসে চোখ ওঠে। মাঝে মধ্যে দেশব্যাপী চোখ ওঠা দেখা দেয়। পরিবারের কেউ বাদ যান না হয়তো সে সময়।

করোনা আ’ক্রা’ন্ত রোগীর লক্ষণগুলোর মধ্যে জ্বর, সর্দি, খুশ-খুশে কাশি, গলা ব্যথা, মাথা ব্যথা, শরীর ব্যথার সঙ্গে চোখ ওঠার লক্ষণ অন্যতম। চোখ ওঠা রোগটি ছোঁয়াচে। ইতিমধ্যে অনেকেই টেলিফোনে জানতে চেয়েছেন চোখ ওঠলেই কি করোনা টেস্ট করাতে হবে?

বর্তমান করোনা দুর্যো’গের সময় জ্বর, সর্দি, কাশির সঙ্গে চোখ ওঠা থাকলে করোনার টেস্ট করা জরুরি। আলাদা থাকতে হবে এবং ১৪ দিন অন্যের সংস্পর্শে না আসাই ভালো। মাস্ক ব্যবহার, ঘরে থাকা, ঘন ঘন সাবান দিয়ে হাত ধোয়া ও সামাজিক দূরত্ব (২ হাত) বজায় রাখতে হবে।

চোখ লাল, চোখে বেশ ব্যথা ও দৃষ্টি শক্তি কমে যাওয়া- এ সব লক্ষণ আরও তিনটি রোগ গ্লুকোমা, ইউভাইটিস বা চোখের আ’ঘা’তের সঙ্গে চোখ ওঠার ভুল হতে পারে।

এ সব ক্ষেত্রে জরুরি চিকিৎসা নিতে চক্ষু বিশেষজ্ঞের সঙ্গে যোগাযোগ করে পরামর্শ গ্রহণ জরুরি। করোনাভা’ইরা’স চোখের মাধ্যমে ছড়ায় বলে EYE Shield পরতে হয়। করোনা দীর্ঘদিন চোখে অবস্থান করে, তাই চোখে হাত দেয়া উচিত নয়। শুধু চোখ ওঠার চিকিৎসার জন্য Antibiotic eye drop ব্যবহারে উপকার পাওয়া যায়।

লেখক: অধ্যাপক ডা. শারফুদ্দিন আহমেদ, সাবেক মহাসচিব, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন, ঢাকা সাবেক উপ-উপাচার্য, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়, শাহবাগ, ঢাকা

চেয়ারম্যান, কমিউনিটি অফথালমোলজি বিভাগ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়, শাহবাগ, ঢাকা…

৭ উপায়ে চেনা যাবে অ্যাপেনডিসাইটিস…

অ্যাপেনডিক্স এমন একটি অঙ্গ যা শরীর থেকে কেটে বাদ দিলেও মানুষ দিব্যি সুস্থভাবে বেঁচে থাকতে পারে। কিন্তু অ্যাপেনডিক্সে কোন সংক্র’মণ হলে বা কোন ক্ষত তৈরি হলে তার জন্য মানুষের যেমন কষ্ট ভোগ করতে হয় তেমনি মৃ”ত্যুর আশঙ্কাও তৈরি হয়।

চিকিৎসকরা বলেন, বৃহদান্ত্র এবং ক্ষুদ্রান্ত্রের সংযোগস্থলে ছোট্ট একটি থলির মতো এই অঙ্গটিতে কোন ভাবে খাদ্য কণা বা ময়লা ঢুকে সংক্র’মণ ছড়িয়ে দিতে পারে। সময় মতো সংক্র’মণ ঠেকাতে ব্যবস্থা না নিলে তা প্রাণ সংশয়ের কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে। অ্যাপেনডিক্সের সংক্র’মণে যে পেটে ব্যথা হয় তা প্রথম উপসর্গ। তবে অ্যাপেনডিসাইটিসে অন্য কী কী উপসর্গ দেখা দেয় তা কি জানেন?

এবার সেসব উপসর্গ ও লক্ষণসমূহ জেনে নেওয়া যাক-

১. পেটের নাভির কাছ থেকে শুরু করে পেটের ডান দিকের নিচ পর্যন্ত অ্যাপেনডিক্সের ব্যথা ছড়িয়ে পড়ে। ২. পেটে ব্যথার সঙ্গে সঙ্গে সারাক্ষণ বমি বমি ভাব থাকবে। ৩. কিছু খেলেই ব্যথার চোটে বমি হয়ে বেরিয়ে যাবে।

৪. খিদে বোধ অস্বাভাবিকভাবে কম থাকবে। ৫. কোষ্ঠকাঠিন্য বা ডায়রিয়ার সমস্যা হঠাৎ করে বেড়ে যাবে। ৬. পেটের ব্যথার চোটে জ্বর আসবে। তবে এ ক্ষেত্রে শরীরের তাপমাত্রা খুব একটা বেশি হয় না। ৭. পেটের ডান দিকের নিচে মা’রা’ত্মক ব্যথা অনুভূত হলে আর পেট ফুলে উঠলে তা অ্যাপেনডিক্স ফেটে যাওয়ার কারণেও হতে পারে।





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Related Articles

Back to top button
Close
%d bloggers like this: