দেশ বার্তা

ক’রোনায় মৃ’তের বাড়িতে এলাকাবাসীর তালা, ভেতরে কাত’রাচ্ছে শিশুসহ ৬ জন!! ⋆ BirohiMon


চট্টগ্রাম নগরের পশ্চিম বা’কলিয়ার বাসিন্দা আ’হমেদ আ’রমান (৫৫)। ক’রোনাভাই’রাসে আ’ক্রা’ন্ত হয়ে মা’রা গেছেন গত সোমবার (৪ মে)। সেদিনই তার স্ত্রী-পুত্র’সহ পুরো পরিবারকে ১৭ নম্বর পশ্চিম বাক’লিয়া ওয়া’র্ডের রাহা’ত্তার পুল চান্দা পুকুর পাড় এলাকার বাড়ি’তে লক’ডাউন করা হয়। অভি’যোগ উঠেছে, গত পাঁচ দিনেও পরি’বারটির খবর নেয়নি স্থানীয় প্রশাসন, জন’প্রতিনি’ধি কিংবা স্বা’স্থ্য বিভাগ।

ইতোমধ্যেই আ’রমা’নের ১৪ মাসের এক নাতি’সহ পরি’বারের ছয় সদ’স্যের শরী’রে জ্ব’র-সর্দি’সহ করো’নাভাই’রাসের’ উপ’সর্গ দেখা দিতে শু’রু করেছে। পরি’বা’রটি পক্ষ থেকে বিভি’ন্নভা’বে নানা পর্যায়ে যো’গাযোগ করেও তাদের নমুনা প’রীক্ষা’র ব্যবস্থা করা যায়নি। উপরন্তু পরি’বার’টির বা’সার দর’জায় তালা মে’রে দিয়েছে অতি উৎসাহী এলা’কার কিছু লোক। ফলে বা’ড়িতে আট’কা পড়ে আছে শি’শুস’হ পরিবারটি।

মৃ’ত আহমেদ আর’মানের ছেলে আবি’দের অভি’যোগ, স্থা’নীয় কা’উন্সিলর এ কে এম আরি’ফুল ইসলাম ডি’উকে’র নেতৃ’ত্বে তাদের বা’ড়িতে তালা দেয়া হলেও এই পাঁ’চদি’নে খবর নে’য়নি কেউ। বা’ড়িওয়া’লা আর আ’ত্মীয়-স্বজ’নের সহা’য়তায় তারা কো’নো’ভাবে দিন কা’টাচ্ছেন।’

আবিদ বলেন, ‘বাবা হঠাৎ অ’সুস্থ বোধ করায় ৩ মে বি’কেলে তাকে চট্টগ্রা’ম মেডিকেল কলেজ হাসপা’তালে ভর্তি করি। পরদি’ন সো’মবার ভোর ৪টার দিকে বা’বার মৃ’ত্যু হয়। সাড়ে ৫টার দিকে বিআ’ইটিআই’ডির (বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপি’ক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজি’জেস) টিম নমু’না সংগ্রহ ক’রে নি’য়ে যায়।

সেদিন বিকে’লেই বাবা’কে প’টিয়া’র গ্রামের বা’ড়িতে দা’ফন করে আম’রা রাহা”ত্তার পুলের বা’সায় ফে’রত আসি। রাত ৯টার দিকে সি’ভিল সা’র্জন অফি’স থেকে জানানো হয়, বাবা ক’রোনা’য় আ’ক্রা’ন্ত ছিলেন। ওই রা’তেই কাউন্সি’লর ও পুলিশ প্রশাসন আমাদের বাসা লক’ডাউন করে, কাউ’ন্সিলর এসে গে’টে তালা দেন।’

তিনি অভি’যোগ করে বলেন, ‘সবা’ই মিলে সে’দিন আ’মাদের তালা মে’রে গেল। ভেতরে আ’মার মা-ভাই-ভা’বী ও তাদের ১৪ মাসে’র শিশুসহ ছয়’জন মানুষ। গত পাঁ’চদি’নে কেউ একবার ফো’ন করে জি’জ্ঞেসও ক’রেনি, আ’মরা কি বেঁ’চে আছি না ম’রে’ গে’ছি। বাড়ি’ওয়া’লা কিছুটা সহা’য়তা করছেন, পাশা’পা’শি আ’ত্মীয়-স্বজনরা যা এনে দি’চ্ছেন, তা খেয়ে বেঁ’চে আছি।’

পরিবা’রের স’বার মধ্যে ক’রো’না উ’পসর্গ দেখা দি’য়েছে জা’নিয়ে আ’বিদ বলেন, ‘গত তিন দিন ধরে প’রিবা’রের সবাই জ্ব’রে ভুগ’ছি। বড় ভা’ই ছা’ড়া স’বার অব’স্থা খা’রাপ। গতকাল থেকে এলা’কার কা’উ’ন্সিলর, থানার ওসি ও সিভি’ল সা’নের সঙ্গে দফা’য় দ’ফায় যো’গাযোগ করেছি। যা’তে অন্তত আ’মাদের নমু’না পরী’ক্ষা করা হয়, নয়’তো এ ঘর থেকে আরও লা’শ বে’র হবে। কিন্ত ২৪ ঘণ্টা পেরি’য়ে গে’লে’ও তা ক’রা হয়নি।’

ভিডিওটি দেখুন

এ বিষ’য়ে জা’নতে ১৭ নম্বর পশ্চি’ম বা’কলিয়া ও’য়ার্ডের কাউ’ন্সিলর এ কে এম আরি’ফুল ইস’লাম ডিউ’ককে ফোন করলেও তিনি রি’সিভ করে’ননি। পরে তার ব’ন্ধু পরি’চয় দিয়ে একজন এই প্রতি’বেদ’কের সঙ্গে কথা বলেন। মু’ঠোফোনে’ তিনি বলেন ‘কাউ’ন্সিল’র এখন ব্যস্ত আছেন, ঘণ্টা’খানেকে’র আগে ফ্রি হ’বেন না।’

পরে ক’রো’না আ’ক্রান্ত পরিবা’রটির কথা বলতেই সেই লোক বলেন, ‘আ’রা বিষয়টা জানি, আসলে তারা ভু’ল বলছেন না, টানা পাঁচ’দিন এভাবে বন্দি থা’কলে আপ’নিও বলবেন। তাদের নমুনা পরীক্ষা’র ব্য’বস্থা নেয়া হচ্ছে।’

শনিবার স’ন্ধ্যা ৭টার দিকে বাক’লিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ নেজাম উ’দ্দিনের সঙ্গে যোগা’যোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘পরিবা’রটি আমা’দের সঙ্গে যো’গাযোগ করেনি। আজ বিকে’লেই তাদের নমুনা পরী’ক্ষার জন্য টিম পা’ঠানো হয়েছে।’

কয়টায় তা’দের নমু’না পরী’ক্ষার জন্য টিম পাঠানো হয়েছে জা’নতে চাই’লে তখন ওসি বলেন, ‘বিকেল ৩টায়।’

করোনা
যদিও ভু’ক্তভো’গী পরি’বারটির অভি’যোগ, ‘এ কথা ডা’হা মি’থ্যা, তাদের কেউ ন’মুনা পরীক্ষা ক’রাতে নিয়ে যেতে আসে’নি, তারা’ও যাননি।’

আবিদ বলেন, ‘গত দুই দিনে কত’জনের সঙ্গে কথা বলেছি, কি’ন্তু এ বলে ওর সা’থে কথা বলতে, সে বলে তার সাথে ক’থা বলতে, কিন্তু কাজের কথা কেউ বলে না। একান্ত অনু’রোধ, আমা’দে’র একটি গাড়ির ব্যব’স্থা করে দেয়া হোক। আম’রা ‘নিজে’রা গি’য়েই নমুনা দিয়ে আ’সবো, আম’রা বাঁ’তে চাই।’

এ ব্যাপারে চট্টগ্রা’মের বি’ভা’গীয় পরি’চালক (স্বাস্থ্য) হাসান শাহ’রিয়ার কবি’রের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এমন তো হবার কথা নয়, ল’ক’ডাউনে থাকা পরিবারকে দেখভালের দা’য়িত্ব স্থানীয় প্রশা’সনের। আপনি এখ’নই বিষ’য়টি সি’ভিল সা’র্জনকে অবহিত করুন, আ’মিও দেখছি।’

চট্টগ্রা’মে’র সি’ভিল সা’র্জন সেখ ফজলে রা’ব্বি বলেন, ‘আমি বিষ’য়টি জেনেছি, তাদের নমুনা পরী’ক্ষার জন্য আজ একটি অ্যা’ম্বুলে’ন্স ঠিক করার কথা ছিল, কিন্তু তা করা যায়নি। আগা’মীকাল সকা’লেই পুরো পরি’বার’টিকে পরী’ক্ষার জন্য বি’আইটি’আইডিতে পাঠানো হবে। কিন্তু ওরা যে খা’বার-দাবা’র নিয়ে সম’স্যায় আছে সেটি দেখ’বেন স্থা’নীয় জন’প্রতিনিধি ও পুলিশ প্রশা’সন। তারা কেন তা ক’রে’ননি তা তো জনি না।’ সূত্র: জাগোনিউজ

নিচের ভিডিওটি মিস করেন নি তো?


Post Views:



Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Related Articles

Back to top button
Close
%d bloggers like this: