Uncategorized

অদ্ভুত ব্যাপার! কথা বললেও ছড়াতে পারে করোনাভাইরাস

শুধু হাঁচি-কাশি নয়, কথা বলার ক্ষেত্রেও সতর্ক হতে হবে। কারণ নতুন গবেষণায় দেখা গেছে, করোনায় সংক্রমিত ব্যক্তির কথা থেকে আসা জলীয় কণার মাধ্যমে আরেকজনের মধ্যে ভাইরাসটি ছড়াতে পারে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় বিজ্ঞান একাডেমির বা পিএনএএস’র জার্নালে প্রকাশিত এ সমীক্ষায় এ তথ্য উঠে এসেছে। গতকাল (বুধবার) গবেষণা–বিষয়ক এ নিবন্ধ প্রকাশিত হয়।

এ নিয়ে একাধিক গবেষণায় কথা বলার মাধ্যমে করোনাভাইরাস ছড়ানোর বিষয়টি প্রমাণিত হলো। এর ফলে বিষয়টিকে গুরুত্বের সঙ্গে নিতে বলেছেন বিশেষজ্ঞরা।

মার্কিন গবেষকদের নতুন এইগবেষণায় দেখা গেছে,উচ্চস্বরে কথা বলার সময় মুখ থেকে বের হওয়া অতি ক্ষুদ্র জলীয় কণা বা মাইক্রোড্রপলেটস বদ্ধ স্থানে ১০ মিনিটেরও বেশি সময় বাতাসে ভেসে থাকতে পারে। করোনাভাইরাস ছড়িয়ে দেওয়ার ক্ষেত্রে এটি ভূমিকা রাখছে বলে মনে করছেন গবেষকেরা।

লালার মধ্যে করোনাভাইরাসের ঘনত্বকে মাথায় নিয়ে বিজ্ঞানীরা অনুমান করছেন যে, প্রতি মিনিট উচ্চস্বরে কথা বলার ফলে এক হাজারেরও বেশি ভাইরাসযুক্ত জলীয় কণা বের হতে পারে। একটি বদ্ধ স্থানে তা আট মিনিট বা তার বেশি সময় ধরে বাতাসে ভেসে থাকতে পারে।

এর আগে এক গবেষণায় বলা হয়েছে, আস্তে কথা বললে মুখ থেকে জলীয় কণা তুলনামূলকভাবে কম বের হয়। কথা বলার মাধ্যমে ভাইরাস ছড়ানোর বিষয়টি গবেষণায় প্রমাণিত হওয়ায় মাস্ক পরার গুরুত্ব আরও বেড়ে গেছে।



Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Related Articles

Back to top button
Close
%d bloggers like this: